এএনবি২৪ ডট নেট/ASIAN NEWS BROADCAST

কুমিল্লা নানুয়াদিঘীর পাড়ে সর্বোচ্চ নিরাপত্তায় জাঁকজমক দূর্গা পূজা হবে: এমপি বাহার

0 31
কুমিল্লা সদর সংসদ সদস্য ও মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার বলেছেন, নানুয়া দিঘীর পাড়ের পূজা মণ্ডপে এবার আরো জাঁকজমক ভাবে পূজা হবে। সেখানে অতিরিক্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার রেখে উৎসবমুখর উদযাপনের ব্যবস্থা করা হবে। গত বছর পূজার সময় আমি দেশে ছিলাম না। ষড়যন্ত্রকারীর পূজা মণ্ডপে হামলা করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করেছে। আমি বিদেশে থেকেও পরিস্থিতির খোঁজ খবর নিয়েছি এবং সামলানোর চেষ্টা করেছি। এবছর আমরা সর্বোচ্চ সতর্ক আছি।

 

বুধবার দুপুরে কুমিল্লা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে আসন্ন দূর্গোৎসব উপলক্ষ্যে আয়োজিত আইনশৃঙ্খলা ও সম্প্রীতি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
এমপি বাহার আরো বলেন, জেলার সকল পূজা মণ্ডপে সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী নিরাপত্তা বলয় তৈরী করা হবে। মন্দির ও মণ্ডপে প্রশাসনের পাশাপাশি আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের স্বেচ্ছাসেবকরা নিরাপত্তায় নিয়োজিত থাকবেন। কুমিল্লা এবার উৎসব মুখর এবং সুশৃঙ্খল পরিবেশে দুর্গোৎসব পালিত হবে।

 

সভার সভাপতি জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান জানান, মণ্ডপের পরিধি অনুসারে বড় মণ্ডপে ৮ জন, বরোয়ারি মণ্ডপে ৬ জন এবং পারিবারিক পূজা মণ্ডপে ৪ জন করে আনসার সদস্য পূজা চলাকালীন সময়ে দিনরাত নিয়োজিত থাকবেন।  এছাড়া পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবির টহল মোতায়েন থাকবে। একটি কন্ট্রোলরুম খোলা হবে- যেখাণ থেকে পুরো জেলার পূজার সার্বক্ষণিক খবর নেয়া হবে। উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণ উপজেলার মন্দির এবং মণ্ডপগুলোর তালিা করে নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।

 

প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আগামী ১ অক্টোবর থেকে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া দুর্গোৎসবে কুমিল্লার ৭৯৪টি মণ্ডপে পূজা চলাকালীন সময়ে দিন রাত আনসার সদস্যদের প্রহরা থাকবে। এছাড়া পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবির আলাদা টহল থাকবে। আগামী তিন দিনের মধ্যে জেলার কোন কোন পূজা মণ্ডপে অতিরিক্ত নিরাপত্তা প্রয়োজন তার তালিকা চাওয়া হয়েছে পূজা উদযাপন কমিটির কাছে। এছাড়া পূজার সময় মণ্ডপের জন্য সরকারি বরাদ্দ সঠিক সময়ে পৌঁছে যাবে বলেও জানানো হয়।

 

 

কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসানের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন কুমিল্লা সদর আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আ ক ম বাহা উদ্দিন বাহার। এসময় কুমিল্লা জেলা পুলিশ সুপার মোঃ আবদুল মান্নান, র‌্যাব-১১ সিপিসি-২ এর অধিনায়ক মেজর মোহাম্মদ সাকিব হোসেন, জেলা পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি ও চান্দিনা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান তাপস বকশী, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম টুটুল, জেলা পূজা উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক নির্মল পাল, মহানগর পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি অচিন্ত্য দাস টিটুসহ মুসলমান ধর্মীয় নেতা, ইমাম, ব্যবসায়ি নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণ উপস্থিত ছিলেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.