Free YouTube Subscribers
anb24.net
সত্যের সন্ধানে আমরা বিশ্ব জুড়ে

ইউক্রেনে ট্যাংক পাঠাতে পোল্যান্ডকে বাধা দেবে না জার্মানি-anb24.net ✍️

0 52

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

পোল্যান্ড যদি রাশিয়ার আগ্রাসনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য কিয়েভকে লিওপার্ড-২ ট্যাংক দিয়ে সাহায্য করতে চায় তারা যুদ্ধক্ষেত্রে অগ্রগতি করতে পারবে। সেক্ষেত্রে পোল্যান্ডেকে বাধা দিবে না জার্মানি। রবিবার এমনটাই বলেছেন জার্মানির পররাষ্ট্রমন্ত্রী। খবর রয়টার্সের।

ইউক্রেনের কর্মকর্তারা কয়েক মাস ধরে পশ্চিমা মিত্রদের কাছে তাদের জার্মানির তৈরি আধুনিক ট্যাঙ্ক সরবরাহ করার আহ্বান জানিয়ে আসছে। কিন্তু বার্লিন এখনও পর্যন্ত সেগুলি পাঠাতে বা অন্য ন্যাটো দেশগুলিকে তা করার অনুমতি দেয়নি।

জার্মানির অনুমোদন ছাড়াই পোল্যান্ড যদি লিওপার্ড-২ ট্যাংক দিতে এগিয়ে আসে তাহলে কী হবে জানতে চাইলে জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী আনালেনা বেয়ারবক ফ্রান্সের এলসিআই টিভিকে বলেছেন, প্রশ্নটি জিজ্ঞেস করা হয়নি, কিন্তু যদি আমাদের অনুমতি চাওয়া হলে আমরা বাধা দিব না।’

 

রবিবার প্যারিসে এক শীর্ষ সম্মেলনে জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শোলজের মন্তব্যের চেয়ে তার মন্তব্য আরও বেশি বলে মনে হয়েছে যে অস্ত্র সরবরাহের সমস্ত সিদ্ধান্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ মিত্রদের সঙ্গে সমন্বয় করে নেওয়া হবে।

ইউক্রেনে লিওপার্ড ট্যাংক পাঠানোর ক্ষেত্রে জার্মানির ওপর প্রবল চাপ রয়েছে। কিন্তু শোলজের সোশ্যাল ডেমোক্র্যাট পার্টি ঐতিহ্যগতভাবে সামরিক সম্পৃক্ততার বিষয়ে সন্দিহান এবং আকস্মিক পদক্ষেপের বিষয়ে সতর্ক যা মস্কোর উদ্বেগকে আরও বাড়তে পারে।

জার্মান প্রতিরক্ষা মন্ত্রী বরিস পিস্টোরিয়াস রবিবার বলেছেন, তিনি ট্যাংকগুলির বিষয়ে শীঘ্রই সিদ্ধান্ত আশা করেছিলেন, যদিও তিনি সতর্কতার বিষয় মাথায় রেখেছেন। পিস্টোরিয়াস এআরডি টিভিকে বলেছেন, জার্মানি তাড়াহুড়ো করে সিদ্ধান্ত নেবে না কারণ সরকারকে জার্মান জনগণের নিরাপত্তার জন্য বাড়িতে পরিণতিসহ অনেকগুলি বিষয় বিবেচনা করতে হবে৷

ইউক্রেনের রাষ্ট্রপতি ভলোদিমির জেলেনস্কি কিয়েভ সফরকারি প্রাক্তন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের সঙ্গে রবিবারের বৈঠকে ট্যাংকগুলির জন্য তার দীর্ঘস্থায়ী আবেদনের পুনরাবৃত্তি করেছিলেন।

ওয়েবসাইটের একটি বিবৃতি অনুসারে জেলেনস্কি বলেছেন, ‘আমাদের আরও অস্ত্র দরকার: ট্যাঙ্ক, বিমান, দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র।’

ইউক্রেন বলেছে, ভারী সাঁজোয়া পশ্চিমা যুদ্ধ ট্যাঙ্কগুলি একটি নতুন রাশিয়ান আক্রমণের আগে ইউক্রেনের স্থল সেনাদের আরও গতিশীলতা এবং সুরক্ষা দেবে যা অদূর ভবিষ্যতে আশা করে কিয়েভ। এটি ইউক্রেনকে রাশিয়ার দখলে যাওয়া কিছু অঞ্চল পুনরুদ্ধার করতেও সহায়তা করবে।

 

প্যারিস সম্মেলনের পর শোলজ একটি সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন, ইউক্রেনে এখন পর্যন্ত সমস্ত অস্ত্র সরবরাহকার পশ্চিমা অংশীদারদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সমন্বয়ের মাধ্যমে হয়েছে। আমরা ভবিষ্যতেও তা করব।

একই সংবাদ সম্মেলনে বক্তৃতাকালে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাখোঁ বলেন, তিনি ইউক্রেনে লেক্লারক ট্যাংক পাঠানোর সম্ভাবনা উড়িয়ে দেননি।

ম্যাক্রোঁ বলেছিলেন যে ট্যাংক প্রেরণ পরিস্থিতিকে বাড়িয়ে তুলতে হবে না, ইউক্রেনীয়দের কার্যকর হতে প্রশিক্ষণ দেওয়ার সময়কে অবশ্যই বিবেচনা করতে হবে এবং ফ্রান্সের নিজস্ব নিরাপত্তাকে বিপন্ন করা যাবে না।

তিনি আরও বলেন, ‘লেক্লারদের বিষয়ে, আমি সেনা মন্ত্রীকে এটিতে কাজ করতে বলেছিলাম, কিন্তু কিছুই উড়িয়ে দেওয়া হয়নি। এই পদক্ষেপটি আগামী দিন এবং সপ্তাহগুলিতে জার্মানির মতো মিত্রদের সঙ্গে সমন্বয় করতে হবে৷

জার্মান সূত্র রয়টার্সকে বলেছে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তার নিজস্ব ট্যাংক পাঠাতে রাজি হলে তারা রাশিয়ার বিরুদ্ধে তার প্রতিরক্ষায় সহায়তা করতে ইউক্রেনে জার্মান তৈরি ট্যাংক পাঠানোর অনুমতি দেবে। কিন্তু মার্কিন কর্মকর্তারা বলেছেন যে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসন এম-১ আব্রামসসহ নিজস্ব ট্যাংক পাঠাতে প্রস্তুত নয়।

ক্রেমলিনের মুখপাত্র শুক্রবার বলেছিলেন, ইউক্রেনে অতিরিক্ত ট্যাংক সরবরাহকারী পশ্চিমা দেশগুলি সংঘাতের গতিপথ পরিবর্তন করবে না এবং তারা ইউক্রেনের জনগণের সমস্যা বাড়িয়ে তুলবে।

 

এএনবি২৪ ডট নেট /

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Leave A Reply

Your email address will not be published.